সোনাগাজীতে মাদ্রাসা ছাত্রীকে আগুনে পুড়ে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় মামলা দায়ের, গ্রেফতার ৭

34

মোহাম্মদ ইকবাল হোসাঈন :

সোনাগাজীতে পরীক্ষা কেন্দ্রে আলীম পরীক্ষার্থী ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে হত্যার চেষ্টার ঘটনায় সোমবার দুপুরে ছাত্রীর বড় ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান বাদী হয়ে সোনাগাজী থানায় মামলা দায়ের করেছেন। সোনাগাজী থানার মামলা নং-১০, তাং- ০৮-০৪-২০১৯খ্রি.। তার বোনকে কেরোসিন ঢেলে হত্যা চেষ্টাকারী বোরকা পরিহিত ৪ জন অজ্ঞাত আসামীরা সহ অন্যান্য আসামীরা। এঘটনায় থানা ও ডিবি পুলিশ পৃথক অভিযান চালিয়ে মোট ৭জনকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে, ওই মাদ্রাসার নাইট গার্ড ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মো. মোস্তফা, দপ্তরী মো. নূরুল আমিন, মাদ্রাসার প্রাক্তন ছাত্র সাইদুল হক, অধ্যক্ষের মুক্তির দাবীতে মানববন্ধনে অংশ নেয়া যুবক জসিম উদ্দিন, আলা উদ্দিন এর আগে ঘটনার দিন মাদ্রাসার ইংরেজি প্রভাষক আবছার উদ্দিন ও আলীম পরীক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম। তাদেরকে উক্ত মামলায় সন্দেহভাজন আসামী হিসেবে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। সোনাগাজী মডেল থানার ওসি মো. মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, আহত ছাত্রীর বড় ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান এজাহারে উল্লেখ করেছেন, গত ২৭মার্চ সকাল ১০টার দিকে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ এসএম সিরাজ উদ- দৌলাহ অফিসের পিয়ন নূরুল আমিনের মাধ্যমে তার বোনকে ডেকে নিয়ে পরীক্ষার আধা ঘন্টা পূর্বে প্রশ্নপত্র দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে তার স্পর্শকাতর স্থানে স্পর্শ করে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন। এ ঘটনায় তার মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে অধ্যক্ষকে আসামী করে ম্মলা দায়ের করেন । ওই দিনই পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। সে কারাগারে রয়েছে। এঘটনায় কিছু লোক অধ্যক্ষের পক্ষ নিয়ে মামলা তুলে নিতে তাদেরকে হুমকি দিয়েছে। এই ঘটনার জেরে শনিবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে পরীক্ষা দিতে কেন্দ্রের ৮নং কক্ষে প্রবেশ করে তার বোন আলীম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফি (১৮)। এসময় নুসরাত জাহানকে তার এক সহপাঠি নিষাদকে সহপাঠিরা মারছে বলে ছাদে ডেকে নেয়। সেখানে বোরখা পরা ৪জন অজ্ঞাত আসামী তাকে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা তুলে নিতে চাপ প্রয়োগ করে। এসময় সে রাজি না হলে ওই ৪জন দুর্বৃত্ত তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। ঘটনার সাথে জড়িত অন্যান্য অজ্ঞাত আসামীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) মো. কামাল হোসেন জানান, ঘটনাটি গভীর ভাবে অনুসন্ধান চলছে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। রাফি বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের আইসি ইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছে। রাফি সোনাগাজী পৌর এলাকার উত্তর চরচান্দিয়া গ্রামের মাও. একেএম মুসা মানিকের কন্যা। রাফির বাবাও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার একটি মাদ্রাসার শিক্ষক।

ভাগ