লিবিয়ায় সামরিক অভিযান ‘দ্রুত বন্ধের’ আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের

7

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও রবিবার বলেন, যুক্তরাষ্ট্র লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলির কাছে যুদ্ধ চলায় গভীরভাবে উদ্বিগ্ন এবং খলিফা হাফতারের সামরিক অভিযান দ্রুত বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছে। খবর এএফপি’র।

এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘আমরা পরিষ্কার করতে চাই যে, আমরা খলিফা হাফতারের বাহিনীর চালানো সামরিক অভিযানের বিরোধী এবং আমরা লিবিয়ার রাজধানীর কাছে এই সামরিক অভিযান দ্রুত বন্ধের আহ্বান জানাচ্ছি।’

লিবিয়ায় মোয়াম্মের গাদ্দাফিকে ২০১১ সালে উৎখাতের সময় থেকে দেশটি চরম বিশৃংখলার মধ্যে পড়ে। আর এর পর থেকে দেশটির পূর্বাঞ্চলে ত্রিপোলি ভিত্তিক বিভিন্ন কর্তৃপক্ষ এবং হাফতারের সমর্থকদের মধ্যে তীব্র বিরোধ চলছে।

রাজধানী দখলে হাফতার সামরিক অভিযান শুরুর তিনদিন পর রোববার ত্রিপোলির দক্ষিণে প্রচন্ড লড়াই হয়। বর্তমানে জাতিসংঘ সমর্থিত একটি সরকারি ইউনিট এবং মিলিশিয়া বাহিনীর হাতে রাজধানীর নিয়ন্ত্রণ রয়েছে।

পম্পেও জোরদিয়ে বলেন, সামরিকভাবে লিবিয়া সংঘাত সমাধান সম্ভব না। তিনি এ উত্তেজনাপূর্ণ পরিস্থিতি থেকে জরুরি ভিত্তিতে বেরিয়ে আসতে সংশ্লিষ্ট সকল পক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, ‘ত্রিপোলিতে এই এক তরফা সামরিক অভিযান বেসামরিক নাগরিকদের চরম ঝুঁকির মুখে ঠেলে দিচ্ছে এবং লিবিয়ার জনগণের উজ্জল ভবিষ্যতের সম্ভাবনাকে নস্যাৎ করছে।’

পম্পেও বলেন, জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ প্রতিনিধি ঘাসান সালামের মধ্যস্থতায় রাজনৈতিক আলোচনা ফের শুরু করতে লিবিয়ার নেতাদের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের চাপ অব্যাহত রয়েছে।

আরো পড়ুন: রমজান উপলক্ষে আবুধাবিতে কেনাকাটায় বিশাল ছাড়

তিনি বলেন, এক্ষেত্রে একটি রাজনৈতিক সমাধান হচ্ছে দেশটিকে একত্রিত করার একমাত্র উপায়। আর এই সমাধান লিবিয়ার সব মানুষের নিরাপত্তা, স্থিতিশীলতা ও সমৃদ্ধি অর্জনের সুযোগ করে দিতে পারে।

ইত্তেফাক/এসআর

ভাগ