পুলিশ কর্মকর্তা আছাদুজ্জামান মিয়া ও হাবিবুর রহমান এর হাত থেকে শীত বস্ত্র নিল হিজড়া সম্প্রদায়

2805
DMP Commissioner Asaduzzaman Mia and Deputy Inspector General (DIG) Habibur Rahman পুলিশ কর্মকর্তা ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া ও ডি আই জি হাবিবুর রহমান

ফরহাদ হোসেন: উত্তরণ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান জনাব হাবিবুর রহমান বিপিএম (বার) পিপিএম ডিআইজি’র সভাপতিত্বে আজ সকাল ১১ টায় মিরপুর বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, মিরপুর-২ ঢাকায় পিছিয়ে পড়া তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) সদস্যদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার জনাব মেঃ আছাদুজ্জামান মিঞা বিপিএম (বার), পিপিএম।

হাবিবুর রহমান ও আছাদুজ্জামান মিয়া কে ফুল দিয়ে বরন করে নেওয়া

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কমিশনার বলেন  বাংলাদেশের উন্নয়নের  সঙ্গে আপনাদেরও (তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ) উন্নয়ন হবে। আপনারা সমাজের মূল ধারায় চলে আসবেন। আপনাদের যে কোন সহযোগিতায় আমাদের পাশে পাবেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ২০১৩ সালে আপনাদের তৃতীয় লিঙ্গ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন।তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী সমাজ কল্যাণ অধিদপ্তরের মাধ্যমে আপনাদের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে এই বাংলাদেশ। আপনারা নিজেদের হীনমন্যতা দূর করে সমাজের মূলধারায় নিজেদের সম্পৃক্ত করতে শিক্ষা গ্রহণ করুন।

হিজড়াদের শীত বস্ত্র বিতরন

ডিআইজি হাবিবুর রহমান বলেন, তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) সদস্যরা আমাদের সমাজেরই অংশ। ২০১৩ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তৃতীয় লিঙ্গ হিসেবে হিজড়াদের স্বীকৃতি দিয়েছেন। আমরা প্রধানমন্ত্রীর আপ্রাণ চেষ্টায় এই তৃতীয় লিঙ্গের সদস্যদের দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে যুক্ত করব।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যথাক্রমে ডিএমপি’র উপ-কমিশনার (মিরপুর) জনাব মাসুদ আহমেদ বিপিএম, নাসা গ্রুপের পরিচালক জনাব মেজর মল্লিক মনিরুজ্জামান (অব.), পাঞ্জেরী পাবলিকেশনের চেয়ারম্যান ও উত্তরণ ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক জনাব কামরুল হাসান শায়ক, বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ন-সম্পাদক জনাব গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু। বক্তারা হিজড়া সম্প্রদায়কে ভিন্নভাবে বিবেচনা না করে তাদেরকে মানুষ হিসেবে বিবেচনার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করেন। তারা বলেন হিজড়া হওয়ার পেছনে তাদের নিজস্ব কোন হাত নেই সৃষ্টিকর্তা তাদেরকে এভাবে সৃষ্টি করেছেন। অন্য দশ জনের মত তাদেরকেও রাষ্ট্রীয় সকল সুযোগ সুবিধা প্রদানসহ কর্মসংস্থান সৃষ্টির প্রতি বিশেষ গুরুত্বারোপ করেন বক্তারা। সভায় স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও অসংখ্য হিজড়া জনগোষ্ঠীর উপস্থিতিতে মুখরিত ছিল। সভা শেষে তাদেরকে শীতবস্ত্র (কম্বল) বিতরণ করা হয়।

উপস্থিত হিজড়া সম্প্রদায়

ভিন্ন বার্তা /ঢাকা /১২ জানুয়ারি /২০১৯ 

ভাগ