গাইবান্ধার কৃতি সন্তান ফজলে রাব্বী মিয়া।যার জন্মই হয়েছে যেন অর্জনের জন্য

59

সাজেদুর আবেদিন শান্তঃ গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনে এ্যাড. ফজলে রাব্বী মিয়ার একে একে সাধিত হল সপ্তম জয়||

একাদশ সংসদ নির্বাচনে গাইবান্ধা-৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী এ্যাড. ফজলে রাব্বী মিয়া সপ্তম জয় পেয়ে আবারও সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। রবিবার (৩০ ডিসেম্বর) রাতে জেলা রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয়ে স্থাপিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ফলাফল সংগ্রহ ও পরিবেশন কেন্দ্র থেকে রিটার্নিং অফিসার ও জেলা প্রশাসক মো. আবদুল মতিন বেসরকারিভাবে বিজয়ী হিসেবে তার নাম ঘোষণা করেন। নৌকা প্রতীকে তিনি পেয়েছেন ২ লাখ ৪২ হাজার ৮৬১ ভোট।

ফারুক আলম সরকার পেয়েছেন ১৯ হাজার ৯৯৬ ভোট। ভোট পড়েছে ৮৭.৫৮ শতাংশ। এই আসনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন ৫ জন।

এ ফজলে রাব্বী মিয়া ব্যাক্তি জীবনে রয়েছে নানা অর্জন যার জন্মই যেন অর্জনের জন্য।
ফজলে রাব্বী মিয়া এরআগে ৬ বার বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। ৩য়, ৪র্থ, ৫ম, ৭ম, ৯ম ও ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্বাচিত হন তিনি। ১৯৯০ সালে আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেছেন। দশম সংসদে ডেপুটি স্পিকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

ফজলে রাব্বী মিয়া ১৯৪৬ সালের ১৫ এপ্রিল গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা উপজেলার গটিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। পিতা ফয়জার রহমান এবং মাতা হামিদুন নেছা। ১৯৬১ সালে তিনি গাইবান্ধা কলেজে ভর্তি হন। তিনি বিএ এবং এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেছেন।

পেশায় আইনজীবী ফজলে রাব্বী মিয়া রাজনীতির সঙ্গে সক্রিয়ভাবে যুক্ত আছেন। ব্যক্তিজীবনে তিনি একজন আইনজীবী। ১৯৬৮ সালে তিনি বাংলাদেশ বার কাউন্সিল সনদ লাভ করেন। এরপর ১৯৮৮ সালে তিনি সুপ্রিম কোর্ট বার এসোসিয়েশনের সদস্য হন।
১৯৫৮ সালে রাজনীতিতে আসেন ফজলে রাব্বী মিয়া। তখন তিনি অষ্টম শ্রেণীতে পড়তেন। ১৯৫৮ সালে আইয়ুব খান পাকিস্তানে মার্শাল ল’ চালু করেছিলেন। সে সময় ফজলে রাব্বীর চাচা উক্ত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। চাচার মাধ্যমে তিনি মার্শাল ল’ বিরোধী আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন।

১৯৬২-৬৩ সালে শিক্ষা কমিশনের রিপোর্টের বিরুদ্ধে তিনি আন্দোলন করেছিলেন।
১৯৭১ সালে ফজলে রাব্বী মিয়া যোগদান করেন। তিনি ১১ নং সেক্টরে যুদ্ধ করেন। এছাড়া বাংলাদেশের স্বাধীনতার পক্ষে বৈশ্বিক জনমত গড়ে তুলতে তিনি কাজ করেছেন।
ফজলে রাব্বী মিয়ার স্ত্রীর নাম আনোয়ারা রাব্বী। ফাহিমা ফারহানা ফারজানা নামে এই দম্পতি তিন মেয়ে আছে।

ভাগ