হঠাৎ কান্নায় ভেঙে পড়েন ‘রাত্রির যাত্রী’র পরিচালক

178

সেলিম শাকিবঃ গতকাল সন্ধ্যায় এফডিসির জহির রায়হান কালার ল্যাব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয় আগামী ১৪ই ডিসেম্বর মুক্তি প্রতীক্ষিত ‘রাত্রির যাত্রী’ সিনেমার ‘মিট দ্য প্রেস’। অনুষ্ঠানে কথা বলতে গিয়ে এক পর্যায়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন উক্ত ছবির পরিচালক হাবিবুল ইসলাম হাবিব।

তিনি এ সময় বলেন, তিন বছরের নানান উত্থান পতনের মধ্যে অনেক বাধার মুখোমুখি হয়েছি। শেষ পর্যায়ে আমার কাঁধে হাত রেখে পাশে দাঁড়ান প্রযোজক সামসুল আলম। তার সহযোগিতায় ছবির কাজটি শেষ করতে পেরেছি। আর ছবি মুক্তির তারিখ নিয়েও রাজনীতি হচ্ছে এখন, আমি এজন্য সাংবাদিকদের সহযোগিতা চাই। এমন বাধার মুখে যেন না পড়তে হয় আমাকে।
তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের কোটি মানুষের প্রিয় নায়িকা মৌসুমী আমার সিনেমার প্রধান শিল্পী। তার মতো একজন নায়িকা আমার সিনেমার গল্পকে ভালোবেসে এই রাজধানীর রাস্তায় রাস্তায় রাতের পর রাত কষ্ট করে শুটিং করেছেন। তার কাছে আমি চির ঋণী।
এরপর অনুষ্ঠানের অতিথি নায়ক ফারুক বলেই উঠলেন, আমি কোনোদিন কোনো পরিচালককে এভাবে কাঁদতে দেখিনি। এটা একজন পরিচালকের কান্না নয়। এটা চলচ্চিত্রের বর্তমান পরিস্থিতির কান্না, যা কেউ প্রকাশ করতে পারেনি। হাবিবও এতদিন পারেননি। কিন্তু শেষমেশ আপনাদের সামনে কান্না ধরে রাখতে পারেননি। প্রিয়দর্শিনী মৌসুমী বলেন, হাবিব ভাই যে কত কষ্ট করেছেন তার স্বপ্নের এই চলচ্চিত্রটির জন্য তা আমি নিজের চোখে দেখেছি। একজন মানুষ তার স্বপ্নপূরণের জন্য এত কষ্ট করতে পারেন তা আমার জানা ছিল না। হাবিব ভাই আজ কেঁদেছেন, তার এই কান্না আমাকেও কষ্ট দিয়েছে। আমি বিশ্বাস করি ‘রাত্রির যাত্রী’ হাবিব ভাইয়ের স্বপ্নপূরণ করবে, দর্শকের কাছে অনুরোধ থাকবে আপনারা হলে গিয়ে সিনেমাটি উপভোগ করবেন।
‘রাত্রির যাত্রী’ চলচ্চিত্রে বিভিন্ন চরিত্রে আরো যারা অভিনয় করেছেন আনিসুর রহমান মিলন, মারজুক রাসেল, এটিএম শামসুজ্জামান, নায়লা নাঈমসহ আরো অনেকে। ‘রাত্রির যাত্রী’র মিট দ্য প্রেস’-এ উপস্থিত ছিলেন চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেন, রাত্রির যাত্রীর অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান, নির্মাতা কাজী হায়াত, আবু মুসা দেবু, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আবদুল আজিজ, নাদের চৌধুরী, ডিএ তায়েব, নির্মাতা অনিমেষ আইচ, সিনেমাটির কেন্দ্রীয় চরিত্রের নায়িকা প্রিয়দর্শিনী মৌসুমীসহ আরো অনেকে।

ভাগ