সাংবাদিকদের উপর হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করা হবে: হাছান মাহমুদ

19
ছবিগুলি কপিরাইট করা থাকতে পারে

স্কুল-কলেজ শিক্ষার্থীদের ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ অান্দোলনে সাংবাদিকদের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতারসহ বিভিন্ন দাবির সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে অাওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের অান্দোলনে কর্তব্যরত সাংবাদিকদের উপর যারা হামলা চালিয়েছেন তাদেরকে চিহ্নিত করে দ্রুত অাইনের অাওতায় অানা হবে।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের অায়োজিত বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের ৮৮তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত এক অালোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

তিনি অারও বলেন, কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ন্যায্য দাবি প্রথম দুই থেকে তিনদিন তাদের আওতায় ছিল। তারপর থেকে ২৫ /৩০ বয়সের যুবকরা স্কুল-কলেজের ড্রেস পরে শিক্ষার্থীদের সাথে মিশে বিভিন্ন উসকানি দিয়ে হামলা চালিয়েছে। দেশে এখন ১৪ কোটি মানুষের হাতে মোবাইল ক্যামেরা রয়েছে। অাস্তে অাস্তে তাদের ছবি বের হয়ে অাসছে। কারো লুকানোর কোন সুযোগ নেই। এরই মধ্যে ষড়যন্ত্রকারীদের চিহ্নিত করা হয়েছে। কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং বাকিদেরও গ্রেফতার করা হবে।

অভিনয় শিল্পীদের উদ্দেশ্য করে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, অাপনারা অভিনয় করতেন, অভিনয় নিয়ে থাকে। নাচ, গানই তো ভালো ছিল। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের অান্দোলেন উসকানি দেওয়ার কী প্রয়োজন ছিল? যে সকল অভিনয় শিল্পীদের গ্রেফতার করা হয়েছে, তাদের সাথে অার কারা জড়িত ছিল তা বের করার জন্য অাইন শৃঙ্খলাবাহিনীদের প্রতি অাহ্বান জানান তিনি।

ড. হাছান মাহমুদ অারও বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যখন জেলে ছিলেন, তখন বেগম মুজিব দলকে অাগলে রাখার চেষ্টা করেছেন।

অালোচনা সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, সুজনের সভাপতি বদিউল  আলমের বাসায় নৈশভোজের আয়োজন করা হয়েছিল, সেখানে ১/১১ কুশিলবরা অংশগ্রহণ করে। তিনি মন্তব্য করেন, একজন রাষ্ট্রদূতও অংশগ্রহণ করে, ষড়যন্ত্রে অংশ নিয়ে কিভাবে শিষ্টাচার বর্হিভূতভাবে এ কাজ করে।

তিনি আরও বলেন, দেশে যে সকল এনজিও সরকারের বিরুদ্ধে ও রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে, তাদের আয়ের উৎস কি তারা কোন খাতে কি খরচ করে তার তদন্ত হওয়া দরকার।

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য চিত্ত রঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানার সঞ্চালনায় অারো বক্তব্য রাখেন বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মিনক, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি অাবু জাফর সূর্য, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাড. বলরাম পোদ্দার, সাংবাদিক রফিকুল ইসলাম রনি, কণ্ঠ শিল্পী এস.ডি রুবেল, আওয়ামী লীগ নেতা মিজানুর রহমান বিটু, অভিনেত্রী অরুনা বিশ্বাস, সাংবাদিক সমীরণ রায়, তুলনা আফরিন, রোকনউদ্দিন পাঠান প্রমুখ।

সূত্র : বিডি-প্রতিদিন/০৮ আগস্ট, ২০১৮/মাহবুব

ভাগ