তুচ্ছ ঘটনায় নারীর মৃত্যু, মা-মেয়ে আটক

18

ঘরের উপর বাঁশ পড়ে আছে। আর তা কেটে নেয়ার কথা বলায় পাশের বাড়ির ৩ নারী ক্ষিপ্ত হয়ে শিউলী আক্তারের চুল ধরে টানাটানি করতে করতে কিল ঘুষি মেরে ফেলে রেখে চলে যায়। আহত অবস্থায় শিউলী আক্তারকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত্যু হয়েছে বলে জানায়। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটে গাজীপুরের কাপাসিয়ার ফুলবাড়ীয়া এলাকায়। নিহত শিউলী আক্তার লতা (৩৪) দুবাই প্রবাসী আব্দুস সাত্তারের স্ত্রী বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় প্রতিবেশী দুই নারীকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলো ফুলবাড়ীয়া এলাকার শেখ আকবর আলীর স্ত্রী কাকলী (২৫) এবং মইজদ্দিনের স্ত্রী হেলেনা আক্তার (৪০)।

কাপাসিয়া থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) মো. মনিরুজ্জামান খান বলেন, পারিবারিক বিরোধের জেরে তুচ্ছ ঘটনায় রবিবার রাতে শিউলী আক্তার লতাকে প্রতিবেশি কাকলী ও হেলেনারা কয়েকজন মিলে কিল-ঘুষি মেরে আহত করে। পরে কাপাসিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক লতাকে মৃত ঘোষণা করেন।

কাপাসিয়ার দূর্গাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল গাফ্ফার জানান, লতাদের বাঁশঝাড়ের একটি বাশ হেলেনাদের সীমানায় রান্নাঘরের উপর চলে যায়। একাধিকবার বাঁশটি কেটে নেয়ার কথা বললেও লতারা তা কেটে নেয়নি। এনিয়ে রবিবার সন্ধ্যায় প্রথমে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে হেলেনা ও কাকলী লোকজন নিয়ে লতার উপর হামলা চালায়। কিছুক্ষণ পর লতা মারা যান। লতার স্বামী দুবাই থাকেন। এ ব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ভাগ