টিকিট বিক্রির শেষ দিনে কমলাপুর জনসমুদ্র

16

ঈদ উপলক্ষে আজ ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রির শেষ দিন। আগামী ২১ আগস্টের টিকিট নিতে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন জনসমুদ্রে পরিণত হয়েছে। সকাল ৮টায় টিকিট বিক্রি শুরু হলেও শনিবার (১১ আগস্ট) বিকেল থেকেই অনেকে লাইনে দাঁড়িয়েছেন। কমলাপুর স্টেশনের ভেতরে ও বাইরে টিকিট প্রত্যাশীদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

আজ ভোর হতে না হতেই মানুষের সারিবদ্ধ লাইন স্টেশনের বাইরে চলে যায়। পুরো স্টেশন এলাকা সিসি টিভি ক্যামেরার মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। কালো বাজারে টিকিট বিক্রি প্রতিরোধে রয়েছে র‍্যাব, পুলিশ, রেলওয়ে পুলিশ, আনসার বাহিনী। অপরাধীদের তাৎক্ষণিক সাজা দিতে পরিচালনা করা হচ্ছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

গতকাল শনিবার সার্ভারে ত্রুটির কারণে প্রায় এক ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর ঢাকার কমলাপুর ও চট্টগ্রামে রেল স্টেশনে আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হয়। এরআগে বুধবার (৮ আগস্ট) সকাল ৮টায় প্রথম দিনের টিকিট বিক্রি শুরু হয়। ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে একযোগে ট্রেনের এ টিকিট দেওয়া হচ্ছে বলে রেলওয়ে স্টেশন সূত্রে জানা যায়।

রেলওয়ে সূত্র মতে, এবার ২০ আগস্টের টিকিটের চাহিদা সবচেয়ে বেশি। আর এজন্য গতকাল টিকিট প্রত্যাশী মানুষের চাপও ছিল বেশি। তবে বুথের সংখ্যা কম হওয়ায় তাদের ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে বলে বুথের সংখ্যা বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন সাধারণ মানুষ।

ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় সকাল ৮টা থেকে টিকিট বিক্রি শুরু হয়। কমলাপুর টিকিট কাটার জন্য যে ২৬টি কাউন্টার খোলা হয়েছে, তার মধ্যে দুটি নারীদের জন্য সংরক্ষিত।

রেল সূত্রে জানায়, এবারো মোট টিকিটের ৬৫ শতাংশ দেয়া হচ্ছে কাউন্টার থেকে। বাকি ৩৫ শতাংশের ৩০ শতাংশ অনলাইন ও মোবাইলে। ৫ শতাংশ ভিআইপি ছাড়াও রেল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য বরাদ্দ রয়েছে।

ভাগ